ডিমের উপকারিতা


সুস্থ থাকতে হলে প্রতিদিন ডিম খেতে হবে। ডিমে রয়েছে নানা উপকারিতা ।


প্রতি দিন ডিম খেলে মস্তিষ্কের ভেতরে নানা রকম পরিবর্তন হয়। এই পরিবর্তন কতোটা স্বাস্থ্যকর তা জানলে অবাক হয়ে যাবেন । সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে যে, প্রতি দিনের ডাইতে ডিম কে রাখলে শরীরের ভেতরে এমন কিছু উপকারি উপাদানের মাত্রা বাড়তে থাকে যে তার প্রভাবে
ব্রেইন সেল শক্তিশালী হয়ে উঠতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই স্মৃতি শক্তি যেমন বৃদ্ধি পায় তেমনি বুদ্ধির ধারা ও বাড়তে থাকে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, ডিমের ভেতরে উপস্থিত
কুলিং এবং ডেকোসো হিক্সনিক এসিড নামক ২ টি উপাদানের মাত্রা শরীরে যত বাড়তে থাকে তত ব্রেইন পাওয়ারের উন্নতি ঘটে ।

সেই কারনে ই তো গবেষকরা ৬ বছর পর থেকেই বাচ্চাদের ডিম খাওয়ানোর পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কারন এই সময়ে বাচ্চাদের শারীরিক বিকাস সব থেকে দ্রুত গতিতে
হতে থাকে। তাই ৬ বছরের পর থেকে প্রতিটি বাচ্চার ই ডিম খাওয়া আবশ্যকীয় । প্রসঙ্গত ডিমে কলিং ছাড়া ও বেশ কিছু উপকারী ৬ টি এসিড , ভিটামিন এ , ভিটামিন বি১২ ,সেলেনিয়াম এবং অন্যান্য পুষ্টিকর উপাদান মজুত থাকে যা ক্যান্সার রোগকে দুরে রাখার পাশাপাশি শরীরের আরও
নানা উপকার এ আসে ।

এরপর ওজন কমায়। এখন প্রায় অনেক মানুষ ই অতিরিক্ত ওজন নিয়ে চিন্তায় আছেন । তাই প্রতিদিন সকালে একটি করে ডিম খেলে ওজন কমবে । ডিমে থাকা একাধিক উপাদান অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখে । এই কারণে খাবারের চাহিদা কমে যায়। এবং ক্যালরির
মাত্রা কম হয় এবং ওজন কমতে থাকে।এতে ভিটামিনের অভাব পুরন হয়। এবং ভিটামিন এ চোখের দৃষ্টি শক্তির বৃদ্ধি ঘটে ও ভিটামিন ই শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যাবস্থার উন্নতি ঘটায় । ডিমে আরও যা রয়েছে – জিংক,ফসফরাস , ও আইরন। যা শরীরের শক্তি বাড়ায় । এবং খনিজের অভাব পুরন
করতে বিশেষ ভুমিকা পালন করে থাকে ।

তাই আমাদের খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন ডিম রাখতে হবে। এবং সুস্থ থাকতে হলে শিশু থেকে বৃদ্ধ সকলকেই ডিম খেতে হবে।


Like it? Share with your friends!

Your reaction?
happy happy
0
happy
angry angry
0
angry
wtf wtf
0
wtf
cute cute
0
cute

ডিমের উপকারিতা

log in

reset password

Back to
log in