বিশ্বের ব্যয়বহুল ১০ টি আংটি ।


আশ্চার্য জনক ভাবে বিশ্বাস করা কঠিন হলেও এমন কিছু আংটি আছে যা অবিশ্বাস্য মূল্যের । ১ মিলিয়ন থেকে শুরু করে ৬০ মিলিয়ন ডলারের ও রয়েছে। হীরের এই ব্যয়বহুল মুল্যের আংটি কে রানী হিসেবে
তুলনা করা হয়।
এই ব্যয়বহুল হীরার মুল্য আমাদের জানতে কোনো ক্ষতি নেই। এই মুল্যবান আংটির তালিকা আমরা নিচে তুলে ধরেছি।

১০.নীল ডায়মন্ড রিং – $ ১০ মিলিয়ন


বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল আংটির তালিকায়, নীল ডায়মন্ড রিং ১০ ম নম্বরে আছে। এই আংটিতে রয়েছে ৬.০১ ক্যারেট হীরা । এই আংটিটি কুশন আকৃতির এবং উভয় দিকে একটি ছোট গোলাপী হীরা
দ্বারা বেষ্টিত।এই আংটি হংকং এ পাওয়া যায় এবং এর মুল্য ২.৫ মিলিয়ন ডলার । এটি ৩ বার বিক্রি করলেও উজ্জ্বল রঙ্গই থাকবে কখনও পরিবর্তন হবেনা। এটি কেনার সামর্থ্য না থাকলেও স্বপ্ন তো দেখাই যায়।

৯. ঝিম পিঙ্ক – $ ১১.৮ মিলিয়ন


বিশ্বজগতের সবচেয়ে ব্যয়বহুল রিং তালিকার তালিকায় এটি ৯ম এ রয়েছে।এতে রয়েছে ৫ ক্যারেট হীরা । এই আংটি যারা দেখে তারা অবাক হয়ে যায় এর নিখুঁত কাজ দেখে। এই সুন্দর কাজের জন্য নিলামে পর্যন্ত
উঠানো হয়। ঝকঝকে গোলাপী ডায়মন্ড রিংটি ১১.৮ মিলিয়ন ডলারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে এর মুল্য। এশিয়ান নিলামে, আংটিটির “চিত্তাকর্ষক তারকা” নামকরণ করা হয়েছিল, আর এই শিরোনামটি কেন
দেওয়া হয় তা তো আংটি টিকে দেখেই বুঝা যায় ।

৮.বুলগেরিয়া ব্লু রিং – $ ১৫.৭ মিলিয়ন


যখন ই বুলগেরিয়া আংটির কথা আসবে তখনই এই মুল্যবান ৮ম আংটিটির কথা মনে পরে যাবে। এটি ১৫.৭ মিলিয়ন ডলারে নিলাম করা হয়েছিল। এটি সবচেয়ে বড় ত্রিভুজ আকৃতির নীল হীরা । এতে রয়েছে
৯.৮৭ ক্যারেট সাদা হীরা ও ১০.৯৫ ক্যারেট নীল হীরা ।এই ২ রঙের মিশ্রণে ই তৈরি বুলগেরিয়া আংটি ।

৭. Chopard নীল ডায়মন্ড রিং – $ ১৬.২৬ মিলিয়ন


এই আংটিটি মুল্যের দিক দিয়ে ৭ম স্থানে রয়েছে। এটি ১৬.২৬ মিলিয়ন ডলারে বিক্রি করা হয়। এতে ১৮ ক্যারেট সাদা সোনার একটি ব্যান্ড সঙ্গে একটি অত্যাশ্চর্য ওভাল আকৃতির নীল হীরা আছে।
এই রিং Chopard jewellers থেকে আনা হয়েছে। যা সুইচ কোম্পানি হিসেবে সুপরিচিত ।

৬. উজ্জ্বল হলুদ রিং (ড্রিম ডায়মন্ড রিং) – $ ১৬.১৩ মিলিয়ন


সবচেয়ে ব্যয়বহুল তালিকার ৬ ষট স্থানে রয়েছে এটি । নিলামে এর মুল্য ১৬.১৩ মিলিয়ন ডলার । এই আংটিতে বায় বহুল হলুদ হীরা রয়েছে। এই আংটিটিতে ১০০ ক্যারেট ও বেশি হীরা রয়েছে ২ পাশে। এটি
সহজেই দেখতে পাওয়া যায় না বলে একে ” ড্রিম ডায়মন্ড ” বা স্বপ্নের হীরা বলা হয়।

৫. পারফেক্ট গোলাপী ডায়মন্ড – $ ২৩.২ মিলিয়ন


৫ম স্থানে যে আংটিটি রয়েছে সেটি হল পারফেক্ট গোলাপী ডায়মন্ড । নিলামে এর মুল্য রেকর্ড পরিমান ছিল।এই সুন্দর আংটিটি দেখলে মনে হবে যে শুধু রাজকুমারীর হাতেই মানাবে। আয়তক্ষেত্র আকৃতির মধ্যে
কাটা, এবং গোলাপী রঙের কিছু আভা।

৪. উইনস্টন নীল ডায়মন্ড রিং – $ ২৩.৮ মিলিয়ন


এই আংটিটিতে অনেক হীরা রয়েছে ,যা ঝকঝকে নীল হীরা । এর দাম ২৩.৮ মিলিয়ন ডলার । টিয়ারড্রপ-আকৃতির বা আমরা বলতে পারি বাদামের আকারের হীরা যা অসাধারণ নিখুঁত । দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া যায়
এই হীরা । পরিশেষে উইনস্টন ,২০১৪ সালে ২৫ শে মার্চ জ্যামিতিক ইন্সটিটিউট অব আমেরিকা কর্তৃক প্রত্যয়িত হয়।উইনস্টন নীল ডায়মন্ডের নাম হ্যারি উইনস্টন ও বলে থাকেন। তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার
একজন জুয়েলার ছিলেন।

৩. গ্রাফ পিঙ্ক ডায়মন্ড রিং – $ ৪৬.২ মিলিয়ন

এই আংটিটি রয়েছে ৩য় স্থানে। এতে রয়েছে ২৪.৭৮ ক্যরেট লিলিনস । ৭৩ বছর আগে এই আংটিটি ৪৬.২ মিলিয়ন ডলারে বিক্রি করা হয়। এটি ও হংকং এ ই নিলামে উঠেছিল । এটি হ্যারি উইনস্টনের বিখ্যাত
জহরত দ্বারা বিক্রি হয়েছিল।এটি নিলাম মুল্যের চেয়ে দিগুণ মুল্য হয়েছিল ।

২. পিঙ্ক তারকা ডায়মন্ড রিং – $ ৭২.০০ মিলিয়ন


বিশ্বের দ্বিতীয় সবচেয়ে ব্যয়বহুল রিং হল পিঙ্ক তারকা ডায়মন্ড রিং ।এতে ৭২ মিলিয়ন ডলার হীরক আছে।আইজাক নেকড়ে সেই ব্যক্তি যিনি এটি বিক্রি করেছেন।এটি গোলাপি হীরা এবং এর আরেক নাম
হল দ্য পিঙ্ক ড্রিম । মূলত, হীরক তার স্বাভাবিক অবস্থায় ১৩২-৬ ক্যারেট ছিল।এই আংটিটিকে পালিশ করতে ২ বছর লেগেছিল। যার ফলে এটি ১৩২.৬ থেকে ৫৯.৬০ ক্যারেট এ কমে এসেছিল।

১.Wittelsbach- Graff ডায়মন্ড রিং – $ ৮০ মিলিয়ন


দাম শুনলে আপনি অবাক হবেন যে, ৮০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি মুল্য রয়েছে এর।এটি হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল আংটি যার স্থান ১ম এ রয়েছে। এই আংটিটি ১৭ দশকের শেষের দিকে ভারতের
গুঁঞ্চুর জেলার কুলুর খনিতে আবিষ্কৃত হইয়েছিল । ৩১.০৬ ক্যারেট গভীর নীল রঙের স্বচ্ছ হীরা রয়েছে। এই হীরা মূলত স্পেনের রাজা ফিলিপ চত্বরের অন্তর্গত। বর্তমানে এটি অস্ট্রিয়ান এবং Bavarian
ক্রাউন জিহ়েলের এক স্থানে অবস্থিত ।


Like it? Share with your friends!

Your reaction?
happy happy
0
happy
angry angry
0
angry
wtf wtf
0
wtf
cute cute
0
cute

বিশ্বের ব্যয়বহুল ১০ টি আংটি ।

log in

reset password

Back to
log in